এ বিজয় জনগণের : প্রধানমন্ত্রী

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরুঙ্কুশ বিজয় বাংলাদেশের সব জনগণের বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণ বারবার ভোট দিয়ে আমাদের সেবা করার সুযোগ দিয়েছেন। এ বিজয় আমার একার নয়, এ বিজয় বাংলাদেশের সব জনগণের। শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় উদযাপনে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশে দেয়া বক্তৃতায় শেখ হাসিনা এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০১৮ সালের নির্বাচনে বাংলাদেশের জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটকে বিজয়ী করেছে। আমরা দলমত নির্বিশেষে সবার জন্য কাজ করব। তৃণমূল পর্যায়ের মানুষের জীবন উন্নত করব। সুশিক্ষা নিয়ে দেশের মানুষ নিজের জীবন গড়ে তুলবে।

নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ায় তিনি সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ঐক্যবদ্ধ শক্তি সবসময় বিজয় অর্জন করে, এই নির্বাচনে সেটাই প্রমাণিত হয়েছে। প্রতিটা মানুষের জীবন মান উন্নয়নে রাজনৈতিক দলমত দেখা হবে না। যারা ভোট দিয়েছেন, যারা দেননি, সবার জন্য কাজ করার প্রতিশ্রুত ব্যক্ত করেন তিনি।

তিনি বলেন, এ রায় জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে। শান্তি ও উন্নয়নের পক্ষে রায় দিয়েছে জনগণ। অন্ধকার থেকে আলোর পথের যাওয়ার রায় দিয়েছে জনগণ। এ রায় হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার রায়। এসময় উন্নত, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তোলার অঙ্গিকার করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে স্বাধীনতাবিরোধী, দুর্নীতিবাজ ও জঙ্গিবাদের কোনো স্থান হবে না।

শেখ হাসিনা বলেন, ব্যক্তিগত জীবনে আমার চাওয়া পাওয়া নেই। জীবন উৎসর্গ করে ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ব। দেশে একটি লোকও না খেয়ে থাকবে না বলে জানান তিনি।

এর আগে দুপুর আড়াইটার দিকে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগের বিজয় সমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়। দুপুর ১২টা থেকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন শুরু হয়। কণ্ঠশিল্পী ফাহমিদা নবী, সালমা ও জলের গান ব্যান্ড সঙ্গীত পরিবেশন করে। আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন সমাবেশের আলোচনা পর্ব সঞ্চালন করছেন।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ