এবার শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ‘প্ররোচণার’ অভিযোগে করা মামলায় কারাগারে থাকা শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে ওই কলেজের একদল শিক্ষার্থী।

শুক্রবার দুপুরে বেইলি রোডে স্কুলের প্রধান ফটকের সামনে ‘নিরপরাধ হাসনা হেনা আপার নিঃশর্ত মুক্তিসহ সসম্মানে ফিরিয়ে আনার দাবিতে’ এক ব্যানারে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে তারা। ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্রীবৃন্দ এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করে।

হাসনা হেনা ম্যাডাম কোনোভাবে অরিত্রীর ঘটনায় দায়ী নন। উনার নাম কোনোভাবেই ঘটনার সঙ্গে আসেনি। উনি পরিস্থিতির শিকার বলে আমরা মনে করছি বলে জানান আন্দোলনে অংশ নেয়া রোজ নামে একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থী।

আন্দোলনকারীরা ‘দোষীদের বিচার করতে গিয়ে নির্দোষের শাস্তি কেন?’, ‘অরিত্রী আমাদের বোন, শিক্ষক হাসনা হেনা আমাদের মা। নির্দোষের নিঃশর্ত মুক্তি চাই’ স্লোগান লেখা বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড হাতে অবস্থানে বসেছে।

প্রসঙ্গত, ওই কলেজের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী অরিত্রী রোববার বার্ষিক পরীক্ষায় মোবাইল ফোনে নকলসহ ধরা পড়েছিলেন। এর কারণে তার বাবা-মাকে ডেকে নিয়ে ‘অপমান করেছিলেন’ অধ্যক্ষ। এরপর সোমবার আত্মহত্যা করে ওই কিশোরী।সেই থেকে উত্তেজনা চলছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

হাসনা হেনা অরিত্রীর ক্লাস টিচার ছিলেন। অরিত্রীর আত্মহত্যার ঘটনার তার বাবা যে মামলা করেছিলেন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস ও প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আখতারের সঙ্গে তাকে আসামি করা হয়। এরপর হাসনা হেনাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঢাকার মহানগর হাকিম আবু সাঈদ তার জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মানবকণ্ঠ/এএম