‘ঈদ জামাতে জায়নামাজ-ছাতা ছাড়া অন্যকিছু নয়’

ঈদের জামাতে জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে আনা যাবেনা বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। তিনি বলেন, ঈদুল ফিতরের জামাত কেন্দ্র করে কয়েক স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা, সিসি ক্যামেরা, ডগ স্কোয়াড, বোমা নিস্ক্রিয়কারী দল, সোয়াত, সাদাপোশাকের পুলিশ থাকবে। ঈদের জামাতে আসা পুরুষ মুসল্লিরা জায়নামাজ ও ছাতা ছাড়া অন্য কিছু সঙ্গে আনতে পারবেন । বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় ঈদগার নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণের সময় সাংবাদিকদের মাধ্যমে এই আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, মুসল্লিদের আসার সময় মৎস্য ভবন ও ঈদগাহর প্রবেশপথে দুই দফা তল্লাশির মধ্য দিয়ে যেতে হবে। জামাত নারীরা হাতব্যাগও আনতে পারবেন না। রাজধানীবাসীকে আশ্বস্ত করে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঈদ কেন্দ্র করে জঙ্গি হামলার বড় কোনো হুমকি নেই। কারণ জামিনে বের হওয়া জঙ্গিদের বিশেষ নজরদারিতে রাখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, জামিনে মুক্তি পাওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ আদালতের বিষয়। এ ব্যাপারে তিনি কোনো মন্তব্য করবেন না। তবে যারা জামিনে বের হচ্ছেন, তাদের প্রতি পুলিশের বিশেষ নজর থাকে।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ২০১৬ সালে শোলাকিয়ায় যে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে এবং বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যে জঙ্গি হামলা হচ্ছে- সেসব বিষয় বিবেচনায় রেখেই দেশে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ঈদ উপলক্ষে বিপুল সংখ্যক মানুষ রাজধানী ছাড়ছেন। মানুষের বাড়ি ফেরা নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন করতে আইন-শৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে সমন্বিত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মহাসড়কগুলোর কোথাও কোথাও যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। এ সব যানজট নিরসনে হাইওয়ে ও জেলা পুলিশ আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে যাতে মানুষের ভোগান্তি কম হয়।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published.