ঈদে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু, ট্রেনের আজ

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ঘরমুখো মানুষের জন্য দূরপাল্লার বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বিক্রি শুরু হয়েছে এসব টিকিট। রাজধানীর বিভিন্ন বাস কাউন্টারগুলোতে বাসের অগ্রিম টিকিটের জন্য সকাল থেকে যাত্রীরা ভিড় করেছেন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করে কাক্সিক্ষত টিকিট পেয়ে খুশি যাত্রীরা। ১৫ তারিখ থেকে ঈদ যাত্রা ধরা হলেও সবচেয়ে বেশি চাহিদা ২০ ও ২১ আগস্টের টিকিটের। কাউন্টার থেকে বলা হচ্ছে, চাকরিজীবীদের চাপ বেশি ২০ আগস্ট। পাশাপাশি আজ বুধবার থেকে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হচ্ছে বলে জানা গেছে।

রাজধানীর গাবতলী, সায়েদাবাদ ও মহাখালী ঘুরে দেখা যায়, আগাম টিকিট বিক্রির জন্য অধিকাংশ পরিবহনের আলাদা কাউন্টার খোলা হয়েছে। বিক্রি শুরু হয়েছে সকাল ৬টা থেকে। মালিক সমিতির পক্ষ থেকে বিভিন্ন পরিবহনকে অনুরোধ করা হয়েছে, কোনোভাবেই যেন সরকার নির্ধারিত ভাড়ার বাইরে বেশি আদায় করা না হয়। তবে কিছু কিছু কাউন্টার থেকে আগাম টিকিট দেয়া হচ্ছে না। এসব বাস কাউন্টার থেকে জানানো হয়, দূরপাল্লার বাস চলাচল এখনো পুরোপুরি স্বাভাবিক হয়নি। তাই আগাম টিকিট বিক্রি নিয়ে কিছুটা অনিশ্চয়তা রয়েছে। দু’একদিনের মধ্যে আগাম টিকিট পুরোদমে বিক্রি শুরু হবে বলেও জানান তারা।

কাক্সিক্ষত দিনের যাত্রা নিশ্চিত করতে পেরে অনেকেই খুশি। তবে বেশিরভাগ টিকিট প্রত্যাশীই ঈদের দু’একদিন আগের টিকিট নিচ্ছেন। অন্যদিকে টিকিট প্রত্যাশীদের অভিযোগ টিকিট থাকার পর তা দেয়া হচ্ছে না। এ ছাড়াও কোম্পানির কর্মচারীরা টিকিট হাতিয়ে নিচ্ছেন। তবে যাত্রীদের এ অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে জানালেন টিকিট বিক্রেতারা। বাসের আগাম টিকিট বিক্রির দিন নির্ধারিত ছিল রোববার। কিন্তু দূরপাল্লার বাস বন্ধ থাকার কারণে বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন আগাম টিকিট বিক্রির সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে তা শুরু করে গতকাল মঙ্গলবার থেকে।

বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মারুফ আহমেদ সোহেল জানান, আজ (গতকাল) মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে বাসের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার দেয়া হচ্ছে ১৬ আগস্ট থেকে ২১ আগস্টের টিকিট। তিনি বলেন, গাবতলী, মহাখালী ও সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল এবং কল্যাণপুর, আসাদগেট ও আরামবাগে অবস্থিত বিভিন্ন আন্তঃজেলা বাস কাউন্টারে আগাম টিকিট পাওয়া যাবে। তবে ঈদ উপলক্ষে পরিবহন ভাড়া বাড়বে না।

প্রতি বছরই টিকিট নিয়ে হাহাকার এবং একরকম ‘যুদ্ধাবস্থা’ থাকে। এবার ঈদুল আজহা উপলক্ষে সেরকম চিত্র দেখা যাচ্ছে না। যদিও অধিকাংশ যাত্রীর অভিযোগ, কাক্সিক্ষত রুটে কাক্সিক্ষত তারিখের টিকিট মিলছে না। এসি বাসের টিকিট চাইলেও মিলছে না।

মুগ্ধ নামে বগুড়ার এক যাত্রী জানান, ৩ ঘণ্টা কল্যাণপুরের শ্যামলী কাউন্টারে দাঁড়িয়ে থাকতেই শুনতে পাচ্ছিলাম ২০ তারিখের টিকিটের হাহাকার। ১৮ তারিখের টিকিট পাওয়া যাচ্ছে না। ২০ তারিখের টিকিট মিললেও তা বাসের পেছনে। বাধ্য হয়ে ১৯ তারিখের টিকিট কেটেছেন তিনি।

তবে শ্যামলী কাউন্টারের ম্যানেজার আলমগীর হোসেন জানান, এবার শ্যামলী পরিবহনের টিকিট বিক্রি হচ্ছে কল্যাণপুর, শ্যামলী ও আসাদগেট কাউন্টার থেকে। সব রুটের সব দিনের পর্যাপ্ত টিকিট রয়েছে শ্যামলী পরিবহনে। কাউকে ফেরত দেয়া হচ্ছে না। তবে ২০ আগস্টের টিকিটের চাহিদা বেশি।

গাবতলী হানিফ এন্টারপ্রাইজের জেনারেল ম্যানেজার মোশাররফ হোসেন বলেন, চাকরিজীবীরা ২০ তারিখ রাতের টিকিট চাচ্ছেন বেশি। সবাই যদি একই তারিখের টিকিট চান তবে তা পূরণ করা কঠিন। আমরা চেষ্টা করছি সবাইকে টিকিট দেয়ার।
একই অবস্থা সাকুরা, সোনারতরী, সুগন্ধা, সুরভী, ডিপজল, নাবিল, টিআর ট্রাভেলস, দেশ ট্রাভেলস, ন্যাশনাল ট্রাভেলস, শাহজাদপুর ও পাবনা এক্সপ্রেসে।

ট্রেনের আগাম টিকিট আজ: ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আজ বুধবার। চলবে ১২ আগস্ট পর্যন্ত। ঢাকা ও চট্টগ্রামে স্টেশন থেকে এসব টিকিট দেয়া হবে। ট্রেনের টিকিট বিক্রির সূচি অনুযায়ী ৮ আগস্ট দেয়া হবে ১৭ আগস্টের টিকিট। ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের, ১০ আগস্ট ১৯ আগস্টের, ১১ আগস্ট ২০ আগস্টের এবং ১২ আগস্ট ২১ আগস্টের অগ্রিম টিকিট দেয়া হবে।

একইভাবে ১৫ আগস্ট থেকে ঈদ ফেরত যাত্রীদের জন্য ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ঈদ ফেরত অগ্রিম টিকিট রাজশাহী, খুলনা, রংপুর, দিনাজপুর ও লালমনিরহাট স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল ৮টায় বিক্রি শুরু হবে। ২৪ আগস্টের ফিরতি টিকিট দেয়া হবে ১৫ আগস্ট। একইভাবে ১৬, ১৭, ১৮ ও ১৯ আগস্ট যথাক্রমে পাওয়া যাবে ২৫, ২৬, ২৭, ২৮ আগস্টের টিকিট।

মানবকণ্ঠ/এএ্‌এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.