ইয়েলো ভেস্ট আন্দোলনে ফের উত্তাল ফ্রান্স

ফ্রান্সে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁর বিরুদ্ধে নতুন করে আন্দোলন শুরু করেছে ইয়েলো ভেস্ট বা হলুদ পোশাকধারী বিক্ষোভকারীরা। শনিবার ফ্রান্সের রাস্তায় হাজার হাজার মানুষ এ বিক্ষোভে জড়ো হন। খবর আল জাজিরার।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, ফ্রান্সের অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বিক্ষোভকারীরা মিছিল নিয়ে মধ্য ফ্রান্স এবং পূর্বের আর্ক ডে ট্র্যেম্ফের স্তম্ভ পর্যন্ত পরিভ্রমণ করেন। এ সময় পুলিশ এবং বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায় পুরো ফ্রান্সে প্রায় ৮৪ হাজার মানুষ রাস্তায় নামে এবং শুধু প্যারিসে ৮ হাজার মানুষ বিক্ষোভে অংশ নেন। এ ছাড়া এ বিক্ষোভ থেকে পুরো ফ্রান্স থেকে মোট ২৪৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে ফ্রান্স সরকার জানিয়েছিল যে তারা শনিবারের ইয়েলো ভেস্ট আন্দোলনে কোন রকম ছাড় দেবে না। আর তাই পুরো ফ্রান্স জুড়ে প্রায় ৮০ হাজার সেনা মোতায়েন করা হয়েছিল।

আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী পেট্রিক নামের ৩৭ বছর বয়সী এক ব্যাক্তি জানায়, আমরা প্যারিসে এসেছি যাতে আমাদের কথা শোনা হয় এবং সেখানে যা হচ্ছে সেখানে কমপক্ষে একটি বিষয় আমাদের জন্য করা হচ্ছে এমনটি আমরা দেখতে চাই । 

ফ্রান্সের মোটরযান আইন অনুযায়ী, বেশি আলো প্রতিফলিত করে এমন এক ধরনের বিশেষ নিরাপত্তামূলক জ্যাকেট গাড়িতে রাখতে হয় চালকদের। এর রঙ সবুজাভ হলুদ (ইয়োলো)। আন্দোলনকারীরা এই জ্যাকেট (ভেস্ট) পরে বিক্ষোভের সূচনা করেছিল বলে আন্দোলনটি পরিচিতি পায় ‘ইয়েলো ভেস্ট’ নামেফ্রান্সের রাস্তায় চলমান আন্দোলনের প্রেক্ষিতে গত ১০ ডিসেম্বর প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ জ্বালানি তেলের কর বৃদ্ধি বাতিল এবং অবসরভাতা ও ওভারটাইমের আয়ের ওপর থেকে কর প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। ন্যূনতম মজুরিও সাত শতাংশ বৃদ্ধির ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি জানান, আন্দোলনকারীদের দাবি দাওয়ার বিষয়ে দেশজুড়ে তিন মাস ধরে আলোচনা চলবে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে অর্থনৈতিকভাবে উপেক্ষিত ফ্রান্সের মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত জনগণ আশ্বস্ত হয়নি। তারা রাষ্ট্রের নীতি নির্ধারনী প্রক্রিয়ায় কাঠামোগত পরিবর্তন চান।

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.