ইয়াবাসহ জবি ছাত্রলীগের দুই কর্মী আটক

দিনের বেলায় বহিষ্কার হওয়ার পর রাতেই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের দুই কর্মীকে ইয়াবাসহ আটক করেছে গেন্ডারিয়া থানা পুলিশ। সোমবার রাত ১১টার দিকে পুরান ঢাকার ধুপখোলা মাঠের পাশে থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো— জবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদিনের কর্মী ও গণিত বিভাগের ১৩ ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. শাহরিয়ার রহমান শান্ত (সাময়িক বহিষ্কৃত) এবং অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের ১০ম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো. নিক্সন।

জানা যায়, ধুপখোলা মাঠের পাশে আসগর আলী হাসপাাতালের পাশে শান্ত ও নিক্সন ইয়াবা সেবন করছিল। এ সময় গেন্ডারিয়া থানা পুলিশের এস আই আশরাফের নেতৃত্বে টহল পুলিশ তল্লাশি করলে তাদের কাছ থেকে সাত পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। তাদের দুজনকে থানায় নিয়ে যাওয়ার সময় ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ৯ম ব্যাচের শিক্ষার্থী আসাদুজ্জামান রুবেল পুলিশকে জেরা করলে তাকেও পুলিশ ভ্যানে করে থানায় নিয়ে যায়। মঙ্গলবার সকালে দুইজনের নামে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দেয়া হয়েছে। এবং রুবেলকে তার অভিভাবকের কাছে তুলে দেয়া হয়। আটককৃত শাহরিয়ার রহমান শান্ত বৃহস্পতিবার ও রোববারের শাখা ছাত্রলীগের সংঘর্ষের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কৃত হয়।

গেন্ডারিয়া থানার ওসি মো. আব্দুল জলিল বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থীকে ধুপখোলা মাঠের পাশে ইয়াবাসহ আটক করা হয়েছে। এসময় একজন তাদের সুপারিশ করতে আসলে তাকেও থানায় নিয়ে আসা হয়। দুই জনের নামে মাদকদ্রব্য আইনে মামলা দেয়া হয়েছে। আর রুবেলকে তার অভিভাবকের কাছে তুলে দেয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড.নূর মোহাম্মদ বলেন, মাদকদ্রব্যসহ আটক শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদীন রাসেল বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় শান্তকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর নিক্সনকে আমি চিনি না, সে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত না।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published.