ইসি গাজীপুরেও খুলনার পুনরাবৃত্তি চাচ্ছে: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, নির্বাচন কমিশন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মতোই গাজীপুরের নির্বাচনে নতুন ডাইমেনশন দেখাতে ব্যস্ত রয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

রিজভী বলেন, বুধবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও কমিশনাররা গাজীপুরের প্রার্থীদের সঙ্গে সমন্বয় সভা করেছেন। তারা বলেছেন, খুলনার পুরাবৃত্তি গাজীপুরে হবে না। কিন্তু, তাদের সফরের পরদিন থেকেই সিটির বিভিন্ন ওয়ার্ডে বিএনপির নির্বাচন সংশ্লিষ্ট নেতাদের ধরপাকড় শুরু হয়েছে। বাড়িতে তল্লাশি ও ভাঙচুর করা হচ্ছে। তারা খুলনার মতো এখানেও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে। শান্তিপূর্ণ ভোট ডাকাতির জন্য গাজীপুরেও শান্তিপূর্ণ কারচুপির ব্যবস্থা করে বিজয় ছিনিয়ে দিবেন।

তিনি জানান, গাজীপুরে সিটি এলাকায় কাশিমপুর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক বিএনপির ইউনিয়ন সভাপতি শওকত হোসেন সরকারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে কাশিমপুর ইউনিটের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব শাহিন, কাশিমপুর নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির সদস্য শাজাহান ডিলার, কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক ডা. মিলন, কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মিলন মিয়া ও কোনাবাড়ী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলামকে ঢাকা ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ছাড়া ৩০ নং ওয়ার্ড বালিয়াড়া নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য মো. আবদুস সামাদ, শাহ আলম এবং ৪৭ নং ওয়ার্ড টঙ্গী নির্বাচনী কেন্দ্র পরিচালনা কমিটির সদস্য আবু সায়েমকে গাজীপুর ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এ ছাড়া নির্বাচনের মিডিয়া সেল প্রধান এবং কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ডা. মাজহারুল আলম, কাউলতিয়া নির্বাচন পরিচালনার আহ্বায়ক নাজিম চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির নেতা সাইফুল ইসলাম বাবুলের বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালিয়েছে।

যুবদল সাধারণ সম্কাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকুর রিমান্ডের প্রতিবাদ জানিয়ে রিজভী বলেন, রিমান্ডে টুকুকে অমানবিক নির্যাতন করা হয়েছে। অসুস্থ হয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, বুধবার সকালেও টুকু সুস্থ ছিলেন। রিমান্ডে নিয়ে তাকে শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে।

এ সময় তিনি জানান, দেশব্যাপী বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার চিকিত্সা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ সমাবেশ সফলভাবে পালন করা হয়েছে। তবে রিজভীর অভিযোগ, কর্মসূচি পালনকালে বিনা উস্কানিতে পুলিশ অনেক জায়গায় হামলা করেছে। অনেক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ