আপিলেও হারলেন হিরো আলম

বগুড়া-৪ আসন থেকে স্বতন্ত্র মনোনয়ন চাওয়া হিরো আলমের মনোনয়ন পত্র বাতিলের বিরুদ্ধে করা আপিল খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের এজলাসে সাড়ে ১২টার দিকে এই ঘোষণা দেয়।

আপিলের যুক্তিতর্কে নির্বাচন কমিশনের এজলাস থেকে বলা হয়, এক শতাংশ ভোটারদের তালিকা হিরো আলম দিয়েছেন তা সঠিক নয়। কেননা ১০ জনের স্বাক্ষর তদন্ত করে দেখা গেছে, তাদের তথ্য মিথ্যা দিয়েছেন।

পরে এজলাস থেকে বের হয়ে হিরো আলম সাংবাদিকদের বলেন, মনোনয়ন পত্র বাতিল হওয়ার পর আমি আপিল করেছিলাম সেটা নামঞ্জুর করা হয়েছে। নমেনি খুঁজে না পেয়ে বাতিল করেছে। আজকে এখানে যারা স্বতন্ত্র প্রার্থী তাদের সবাইকে বাদ দেয়া হয়েছে। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মনোনয়ন না দেয়ার কারণ আমি মনে করি ষড়যন্ত্র।

রাগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে হিরো আলম বলেন, আমার প্রতি অন্যায় করা হয়েছে। আমার ক্ষমতা নেই বলেই মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সবকিছু রাজনৈতিক চালে চলছে। আমি এখন হাইকোর্টে আপিল করব, আমি এর শেষ দেখে নিব। রাজনীতির মাঠ থেকে চলে যাওয়ার হিরো আলম আমি না। হিরোকে এত সহজে জিরো করা যাবে না।

এই রায়ের মধ্য দিয়ে হিরো আলমের নির্বাচন করা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ল। তবে তিনি প্রার্থিতা ফিরে পেতে চাইলে হাইকোর্টে আপিল করতে পারবেন। তিনি আপিল করবেন কিনা এ ব্যাপারে এখনও কিছু জানাননি।

প্রসঙ্গত, জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচন করতে চেয়েছিলেন হিরো আলম। মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে মনোনয়নপত্র জমা দেন। গত রোববার মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা দেন।

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.