অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি জাতীয় পার্টির

জাতীয় পার্টি

নির্বাচনের আগে সরকার ভেঙে দিয়ে সংসদে আনুপাতিক হারে সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী সব দলের সদস্যকে নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। একই সঙ্গে বিএনপি বর্তমান সংসদে না থাকায় তাদের এ সরকারের থাকার কোনো সুযোগ নেই বলেও মত দেন তিনি।

সোমবার রাজধানী আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের সম্মেলন কক্ষে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে সংলাপে দলটি এ দাবি জানায়।

এরশাদ তার লিখিত বক্তব্যে দাবি করেন, বিএনপি বর্তমান সংসদে না থাকায় তাদের এ সরকারের থাকার কোনো সুযোগ নেই। প্রতিটি তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা জাতীয় পার্টির প্রতি বিমাতাসুলভ আচরণ করেছে। ফলে দলটি মনে করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বিলোপ সাধনের মাধ্যমে কলঙ্কমুক্ত হয়েছে।

লিখিত প্রস্তাবে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে তিনি আরো জানান, নির্বাচনে স্বশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন, নির্বাচন কমিশন স্বাধীনভাবে কাজ করা, নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণার পর নির্দিষ্ট সময়ে সংসদ ভেঙে দিয়ে সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী সকল দলের আনুপাতিক প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে অন্তবর্তী সবকার গঠন করতে হবে। দলীয় প্রধানের সুপারিশের ভিত্তিতে অন্তবর্তী মন্ত্রিসভার সদস্য নিয়োগ করতে হবে। নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণার পর জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনে কোনো বিতর্কিত কর্মকর্তাকে দায়িত্ব রাখা যাবে না।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংলাপে অন্যান্য কমিশনারসহ ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন। জাতীয় পার্টির পক্ষে নেতৃত্ব দেন দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। ২৬ সদস্যের প্রতিনিধিদলে আরো অংশ নেন পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, জিএম কাদের, অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি প্রমুখ।

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে রাজনৈতিক দলগুলোর মতামত নিতে নির্বাচন কমিশন ধারাবাহিক সংলাপের আয়োজন করেছে। এরই অংশ হিসেবে জাতীয় পার্টি সংলাপে অংশ নিল সোমবার।

মানবকণ্ঠ/এসএস