অনুশীলন থেকে ফিরে স্বর্ণ জয়ী সাঁতারুর আত্মহত্যা

সকালে বাবার সঙ্গে সুইমিং পুলে অনুশীলনে যান মৌপ্রিয়া মিত্র। দুই ঘণ্টা অনুশীলন শেষে বাসায় ফিরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন ভারতের ১৬ বছর বয়সী এ তরুণী। সোমবার দেশটির চুচুঁড়া থানার সাবেহবাগানে এই ঘটনা ঘটে।

হুগলি গার্লস স্কুলের দশম শ্রেনির ছাত্রী মৌপ্রিয়ার বাসা দেবানন্দপুরে। ১৬ বছর বয়সী এই প্রতিভাবান সাঁতারুর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ পশ্চিমবঙ্গের ক্রীড়াঙ্গন।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সুইমিং পুল থেকে ফিরে নিজের কক্ষে চলে যান মৌপ্রিয়া। সকালের নাস্তার জন্য মা অনেক ডাকাডাকির পর সাড়া না পেয়ে, দুশ্চিন্তায় পড়ে যান। প্রতিবেশীদের নিয়ে দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে দেখেন মেয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। আগামী ২৬ জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া জুনিয়র জাতীয় সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপেও তার পদকের ভরসায় ছিল পশ্চিমবঙ্গের সাঁতার ফেডারেশন। প্রতিযোগিতায় নামার দেড় মাস আগে আত্মহত্যা করেন মৌপ্রিয়া মিত্র।

দুই বছর আগে শ্রীলঙ্কার কলম্বোয় সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে ডাইভিং সোনা এবং স্প্রিং বোর্ডে রুপা জিতে আলোচনায় চলে আসেন মৌপ্রিয়া। গত চার বছর ধরে সে কলকাতার সেন্ট্রাল সুইমিং ক্লাবে ট্রেনিং করছিল কোচ নিমাই ভৌমিকের কাছে।

সোমবার নিমাই ভৌমিক বললেন, আমি ভাবতে পারছি না। গত শনিবারও আমার কাছে ট্রেনিং করে গিয়েছে। ২০১৫ থেকেই ও জাতীয় স্তরে পদক জিতে আসছে। তাছাড়া, গত চার বছরে ওকে একদিনও কোনও কারণে বিমর্ষ বা হতাশ হতে দেখিনি। প্রতিদিন প্রায় ছয় ঘণ্টা করে ট্রেনিং করত। স্বপ্ন দেখত ডাইভিং করে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার।

মানবকণ্ঠ/বিএ