অনাস্থা ভোটে টিকে গেলেন থেরেসা মে

ব্রেক্সিট ইস্যুতে প্রত্যাখ্যাত হলেও অনাস্থা ভোটে টিকে গিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। মাত্র ১৯ ভোটের ব্যবধানে টিকে গেছে তার সরকার। খবর বিবিসির। 

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টে দীর্ঘ আলোচনার পর এই ভোটাভুটিতে থেরেস মে’র সরকারের প্রতি সমর্থন জানান ৩২৫ জন এমপি, অপরদিকে অনাস্থা জানান ৩০৬ জন।

এর প্রতিক্রিয়ায় থেরেসা মে , ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিতে সব এমপিদের নিজ স্বার্থকে একপাশে রেখে একসঙ্গে গঠনমূলক কাজ করার আহবান জানান।

 মে বলেন, “লেবার পার্টির নেতা এখন পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে যোগ না দেয়ায় আমি হতাশ হয়েছি। তবে আমাদের দরজা সব সময় খোলা আছে। “

এর আগে মঙ্গলবার ব্রেক্সিট ইস্যুতে দীর্ঘ আলোচনার পর এক ভোটাভুটিতে ২৩০ ভোটের রেকর্ড ব্যবধানে পরাজিত হয়  মে’র ব্রেক্সিট চুক্তিটি।

প্রস্তাবটি বাতিলের পক্ষে ভোট দিয়েছিলেন ৪৩২জন সংসদ সদস্য, যেখানে প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন ২০২জন।পার্লামেন্টে বিরোধী দলের সদস্যদের পাশাপাশি নিজ দলের ১১৮জন এমপি বিরোধী দলের সঙ্গে মিসেস মে’র চুক্তির বিপক্ষে ভোট দেন।

তার পরপরই থেরেসা মে’র সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন বিরোধী লেবার পার্টির প্রধান জেরেমি করবিন।

মানবকণ্ঠ/এআর