শিরোনাম :
হত্যা রহস্যের কিনারা এখনো খুঁজে পায়নি পুলিশ
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 12:00 AM
গাইবান্ধা প্রতিনিধি
হত্যা রহস্যের কিনারা এখনো খুঁজে পায়নি পুলিশগাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের চাঞ্চল্যকর এমপি লিটন হত্যা মামলার কিনারা খুঁজে পায়নি পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, দেশের সবক’টি গোয়েন্দা সংস্থার চৌকস স্পেশালাইজড দল সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত অব্যাহত রেখেছে। কিন্তু এই হত্যারহস্যের সঙ্গে জড়িতদের এখনো চিহ্নিত করা যায়নি। তবে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, পরিকল্পিত এই হত্যাকাণ্ডের কিনারা করতে আরো সময় প্রয়োজন। তারা বলছেন, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে স্থানীয় রাজনৈতিক বিরোধ, জামায়াত-শিবির ও নব্য জেএমবির সংশ্লিষ্টতা, পারিবারিক বিষয়সহ বেশকিছু ঘটনা নিয়ে তদন্ত করতে হচ্ছে। তবে পুলিশের আশা, গ্রেফতার হওয়া সন্দেহভাজনদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের মধ্য দিয়ে তারা নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবে।
এদিকে গতকাল বুধবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল রংপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভা শেষে দুপুর সোয়া ৩টায় এমপি লিটনের শাহবাজ মাস্টারপাড়া গ্রামে গিয়ে কবর জিয়ারত করবেন বলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল। সাংবাদিকসহ স্থানীয় রাজনীতিবিদ এবং সাধারণ মানুষ দীর্ঘ সময় তার জন্য অপেক্ষা করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মন্ত্রী সুন্দরগঞ্জে আসার কর্মসূচি বাতিল করেন। তবে সন্ধ্যায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সভাপতি ও রংপুর-৪ আসনের এমপি টিপু মুন্সিসহ কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ আবুল কালাম আজাদ এমপি, হোসনে আকতার ডালিয়া এমপি, এমপি লিটনের কবর জিয়ারত করেন। তারা এমপি লিটনের স্ত্রী সৈয়দা খুরশিদ জাহান হক স্মৃতি, এমপি লিটনের বড় বোন আফরোজা বারীর সঙ্গেও দেখা করে সান্ত¡না দেন।
টিপু মুন্সি সাংবাদিকদের বলেন, সরকার এমপি লিটন হত্যার সঙ্গে জড়িত খুনিদের ছাড় দেবে না। খুনিদের খুঁজে বের করে অবশ্যই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। একাধিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা এমপি লিটন হত্যার বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছে। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার হাবিবুল আলম ও থানার ওসি আতিয়ার রহমান।
রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে: এমপি লিটন হত্যা মামলায় গ্রেফতার ৮ জন আসামিকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ এখনো চলছে। রিমান্ডে পূর্ব থানা জামায়াতের আমির ও চেংমারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক একাধিক মামলার আসামি সাইফুল ইসলাম মণ্ডল (৫০), উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবীব মাসুদ (৪০), রামভদ্র কদমতলা গ্রামের ইসমাইল হোসেনের পুত্র হাজি ফরিদ মিয়া (৭০), নিজপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের পুত্র সামিউল ইসলাম (৩২), খামারপাচগাছী গ্রামের একরামুল হোসেনের পুত্র হাদিসুর রহমান (৩০), উত্তর হাতীবান্দা গ্রামের রোস্তম আলীর পুত্র জিয়াউর রহমান (৩২), রামভদ্র খানাবাড়ী গ্রামের আবদুল করিমের পুত্র হজরত আলী (৪৪) ও পূর্ব শিবরাম গ্রামের সাবু খন্দকারের পুত্র নবি নুর খন্দকারকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
লিটনের বোন জানালেন: গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সরকারদলীয় এমপি মনজুরুল ইসলাম লিটনের ছোট বোন ও হত্যা মামলার বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকলী গতকাল সাংবাদিকদের জানান, যেহেতু প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবে ব্যাপারটি দেখছেন, তাই আমরা হত্যার রহস্য উদঘাটনে আশাবাদী। যত সময়ই লাগুক আমার ভাইয়ের প্রকৃত হত্যাকারী যে বা যারাই হোক তাদের আইনের আওতায় দেখতে চাই। তাদের যেন বিচার হয়। গতকাল বিকেলে শাহবাজ গ্রামের বাড়ির উঠানে এমপি লিটনের কবরের পাশে দাঁড়িয়ে কাকলী এসব কথা বলেন।







শেষ পাতা'র আরও খবর

অ্যাপস ও ফিড
সামাজিক নেটওয়ার্ক
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর
প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২
ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । মানবকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর, প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com