শিরোনাম :
পল্লী বিদ্যুতের পরিচালক নির্বাচনে মনোহরগঞ্জের যুবলীগ নেতার জালিয়াতি : জাল সনদে প্রথমবার নির্বাচিত, এবার ধরা
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 12:00 AM
কুমিল্লা প্রতিনিধি
কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ উপজেলার নাথেরপেটুয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক শেখ মো. জসিম উদ্দিন গত বছর কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর ৫ নম্বর এলাকার পরিচালক পদে এক বছরের মেয়াদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছিলেন। যদিও ওই সময়ে অভিযোগ ওঠে দলীয় প্রভাব খাটিয়ে শেখ মো. জসিম উদ্দিন অন্য কাউকে প্রার্থী হতে না দেয়াতেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। আগামী ২৩ জানুয়ারি আবারো ওই সমিতির ৫ নম্বর এলাকার পরিচালক পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে, গতবারের মতো এবারো দলীয় প্রভাব খাটিয়ে শেখ মো. জসিম উদ্দিন অন্য কাউকেই মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে দেননি। তবে গত বছর প্রথমবারের মতো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলেও এবার ধরা পড়েছেন ওই যুবলীগ নেতা। এসএসসির শিক্ষা সনদ জাল বলে প্রমাণিত হওয়ায় তাকে অবৈধ প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।
সমিতির সূত্র জানায়, কোনো ব্যক্তি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক পদে প্রার্থী হতে হলে অবশ্যই প্রার্থীর শিক্ষাগত যোগ্যতা কমপক্ষে এসএসসি বা এর সমমান হতে হবে। এ ছাড়া প্রার্থী যদি কোনো রাজনৈতিক দলের পদে দায়িত্ব পালন করেন তাহলেও তিনি অযোগ্য প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হবেন।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, গত বছর কুমিল্লা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ কে ভাগ করে জেলার লাকসাম, মনোহরগঞ্জ ও নাঙ্গলকোট উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন নিয়ে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ গঠিত হয়। ওই বছর এ সমিতিতে প্রথমবারের মতো ১ বছরের মেয়াদে পরিচালক পদে নির্বাচন    অনুষ্ঠিত হয়। ওই সময়ে সমিতির ৫ নম্বর নির্বাচনী এলাকায় (মনোহরগঞ্জের নাথেরপেটুয়া ও বিপুলাসার ইউনিয়ন) অন্য কাউকে প্রার্থী হতে না দিয়ে পরিচালক পদে এক বছরের জন্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন শেখ মো. জসিম উদ্দিন। যদিও ওই নির্বাচনে জসিম উদ্দিনের শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ নিয়ে আপত্তি দেখা দিলেও রহস্যজনক কারণে তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ। জালিয়াতির মাধ্যমে পল্লী বিদুতের পরিচালক নির্বাচিত হয়ে শেখ মো. জসিম উদ্দিন গত এক বছর ওই দুই ইউনিয়নে ব্যাপক অনিয়মে জড়িয়েছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।
সূত্রে জানা গেছে, গত বছর এক বছর মেয়াদে নির্বাচন হলেও এবার তিন বছর মেয়াদে আগামী ২৩ জানুয়ারি কুমিল্লা পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর ৫ নম্বর এলাকার পরিচালক পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ১৭ ও ১৮ ডিসেম্বর ছিল এ নির্বাচনে প্রার্থী হতে ইচ্ছুকদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের শেষ দিন। তবে এবারো দলীয় প্রভাবে জসিম উদ্দিন অন্য কাউকে মনোনয়ন সংগ্রহ করতে দেননি। এ নিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের অন্ত নেই। ২৪ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে এ নির্বাচনে বৈধ প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করে নির্বাচন কমিশন। সর্বশেষ ২৮ ডিসেম্বর চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হয়। জালিয়াতির মাধ্যমে জাল শিক্ষা সদন ব্যবহার করে প্রার্থী হওয়ায় ওই প্রার্থী তালিকায় শেখ মো. জসিম উদ্দিনের নাম অবৈধ প্রার্থী বলে উল্লেখ করা হয়। যার ফলে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় ২৩ জানুয়ারি ৫ নম্বর এলাকায় নির্বাচন অনুষ্ঠান নাও হতে পারে।
তবে অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত শেখ মো. জসিম উদ্দিন বলেন, কিছু ঝামেলার কারণে আমার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। আর একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তিনি বলেন, আমার শিক্ষাগত সনদে কোনো সমস্যা নেই।
এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৪ এর পরিচালক পদে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন কমিশন প্রধান মো. আলতাফ হোসেন চৌধুরী বলেন, আমি জেনেছি গত বছরও ওই প্রার্থীর এসএসসি পাস শিক্ষা সনদ নিয়ে আমাদের কর্তৃপক্ষের সংশয় ছিল। পরে কর্তৃপক্ষ যাচাই-বাছাই শেষে নিশ্চিত হয় তার শিক্ষা সনদ জাল। আর বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় এবারের নির্বাচনে অবৈধ প্রার্থী হিসেবে তার মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।







শেষ পাতা'র আরও খবর

অ্যাপস ও ফিড
সামাজিক নেটওয়ার্ক
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর
প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২
ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । মানবকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর, প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com