শিরোনাম :
ওয়েলিংটনে কী অপেক্ষা করছে মুশফিকদের জন্য!
Published : Thursday, 12 January, 2017 at 12:00 AM
ক্রীড়া প্রতিবেদক
ওয়েলিংটনে কী অপেক্ষা করছে মুশফিকদের জন্য!রঙিন পোশাকে সাদা বলের লড়াই শেষ। আজ শুরু সাদা পোশাকে লাল বলের লড়াই। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সাদা বলের লড়াইয়ে বাংলাদেশের জয়ের সম্ভাবনা ছিল বেশি। কারণ সাদা বলে বিশেষ করে একদিনের ক্রিকেটে বাংলাদেশ ২০১৫ সাল থেকে নিজেদের উন্নতি ঘটিয়ে বিশ্ব ক্রিকেটে শক্তিশালী অবস্থান তৈরি করেছিল। কিন্তু ঘরের মাঠের এই সাফল্য নিউজিল্যান্ডে এসে ‘ভোঁতা’ হয়ে গেছে। সেখানে লাল বলের ম্যাচে বাংলাদেশ মাত্রই উন্নতির পথে পা ফেলেছে। ঘরের মাঠেই অক্টোবরে ইংল্যান্ডকে ঘায়েল করে উত্তরণের পথে যাত্রা শুরু করে। এই অর্জনকে সম্বল করে ওয়েলিংটনে আদৌ কি সম্ভব হবে ভালো কিছু করার? দলপতি মুশফিকুর রহিমের কথায় অন্তত সে রকম কোনো ইঙ্গিত বহন করেনি। তিনি ঘরের মাঠে পাওয়া জয়কে নিজেদের শক্তিশালী বলে ভাবতে রাজি না। তাই তিনি স্থির করেছেন ম্যাচে লড়াই করে লম্বা সময় খেলা।
নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের সবচেয়ে মলিন হলো টেস্ট ক্রিকেটের রেকর্ড! বৃষ্টি ছাড়া তিন দিনের বেশি খেলা টেনে নিয়ে যাওয়া টেস্টের সংখ্যা মাত্র একটি ২০১০ সালে হ্যামিলটনে। বাংলাদেশের বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ বাউন্সি উইকেটে পেসারদের তাণ্ডব। এবারো কিন্তু তা থেকে রক্ষা নেই। ওয়েলিংটনে খেলা হওয়াতে এখানে পেসারদের নৃত্য আরো বেশি করে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা। বিষয়টি মাথায় রেখে বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্টও সে পথে হাঁটতে যাচ্ছে। তিন পেসার এক রকম চূড়ান্ত। যেখানে আবার দু’জনের ঘটবে অভিষেক। তারা হলেন তাসকিন ও শুভাশিষ। অপরজন হলের কামরুল ইসলাম রাব্বি। তিনিও নতুন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে অভিষেক হয়েছিল। দুই টেস্টে বোলিং করেছিলেন মাত্র মাত্র ১১ ওভার। উইকেট পেয়েছিলেন মাত্র একটি। দলের অপর পেসার রুবেলের খেলার সম্ভাবনা কম। তিনি টেস্ট খেলেছেন ২৩টি। যদি পূর্বাভাস হিসেবে পাওয়া পেস বোলিং আক্রমণ এ রকম হয় তাহলে বাংলাদেশের আক্রমণ হবে একেবারেই আনকোরা। মাত্র ১১ ওভারের অভিজ্ঞতাপুষ্ট! এদিকে আবার উইকেট ও কন্ডিশন ভাবনায় টিম ম্যানেজমেন্টকে একেবারে বেকায়দায় ফেলে দিয়েছে। যে কারণে তাদের ভাবতে হচ্ছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অভিষেকেই বাজিমাত করা অফ স্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজকে সেরা একদাশে না রাখার! সেখানে চতুর্থ পেসার হিসেবে সৌম্য সরকারের সেøা মিডিয়ামকে কাজে লাগানোর ভাবনা করা হচ্ছে। পাশাপাশি রানে ফেরা সৌম্য সরকারের ব্যাটিংও বিবেচনায় আছে। ওয়েলিংটনের বাতাসের গতিবেগ আসলে বেশি ভাবাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্টকে। যে কারণে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে খেলা সবশেষ টেস্টে যেখানে পেসার ছিলেন মাত্র একজন আর স্পিনার ছিলেন চারজন, সেখানে ওয়েলিংটন টেস্টে সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র। স্পিনার বলতে শুধুই সাকিব। নিউজিল্যান্ড কন্ডিশনের সুবিধা কাজে লাগাতে যেমন পেসারদের ওপর নির্ভর করছে, বাংলাদেশ দলও একই সুবিধা নিতে আগ্রহী!
এই আগ্রহের মাঝে আবার ছেদও পড়ার সম্ভাবনা আছে। এই উইকেটে খেলা সবশেষ টেস্টে আবার অফ স্পিনারের আধিপত্য ছিল। অস্ট্রেলিয়ার নাথান লিয়ন দুই ইনিংসে নিয়েছিলেন ৭ উইকেট। এই বিবেচনায় আবার মেহেদী হাসান মিরাজ চলে আসেন। তবে মাঠের লড়াইয়ের আগে টিম ম্যানেজমেন্টকে সেরা একাদশ চূড়ান্ত করার লড়াইয়েও নামতে হচ্ছে বেশ ভালোভাবেই।
টিম ম্যানেজমেন্টের ভাবনায় বোলিং বিভাগ থাকলেও ব্যাটিংয়ে ভালো করতে হবে। রঙিন পোশাকে ব্যাটিংয়ে দল বেশ ভুগিয়েছে। এখানে যোগ হয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটের সলিট ব্যাটসম্যান মমিনুল হক। আবার পেস বোলিং সাজাতে গিয়ে লম্বা ব্যাটিং লাইনও হচ্ছে না। বোলাররা যদি নিজেদের সেরাটা দিয়ে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটসম্যানদের অল্প রানে আটকে রাখতে পারেন তার ফায়দা তখন নিতে হবে তামিম-ইমরুল-মাহমুদউল্লাহ-সাব্বির-মমিনুল-মুশফিকদের। এখানে খেলা বাংলাদেশের আগের দুই টেস্টে আবার ব্যাটসম্যানদের আছে দুঃখের রজনী। চারটি ইনিংসই দুইশ’ রানের নিচে মোড়া। এই ধারা থেকে নিজেদের মুক্ত করতে হবে! আবার টস জয়ও একটা বিরাট ব্যাপার। টস জয় মানেই হাসতে হাসতে পেসারদের হাতে বল তুলে দেয়া। মুশফিককে তাই টস জয়ের জন্যও প্রার্থনা করতে হবে।








অ্যাপস ও ফিড
সামাজিক নেটওয়ার্ক
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর
প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২
ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । মানবকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর, প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com