শিরোনাম :
ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে ঢাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা
নিজস্ব প্রতিবেদক
Published : Wednesday, 11 January, 2017 at 9:18 PM, Update: 11.01.2017 9:21:49 PM
ফেসবুকে ঘোষণা দিয়ে ঢাবি শিক্ষার্থীর আত্মহত্যাবাবা-মা’র সঙ্গে অভিমান করে ফেসবুক পাতায় ঘোষণা দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। তার নাম মোহসীনা হক মেধা (২০)। তিনি আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।
বুধবার ভোরে রাজধানীর পূর্ব নাখালপাড়ার ৩৩৬/বি নম্বর বাড়ির দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যাট থেকে পুলিশ মেধার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে। তার ফেসবুকে কী লেখা ছিল তা পুলিশ জানতে পারেনি। পুলিশ জানার আগেই মেধার বন্ধু হাসান ফেসবুক একাউন্টটি ডিঅ‌্যাক্টিভেট (অকার্যকর) করে দেয়।
পুলিশ ধারণা করছে, মেধার আত্মহত্যার আগে হাসানের সঙ্গে ফেসবুকে মেধার কথোপকথন হয়েছিল। রাতভর এই কথোপকথনের বিষয়টি টের পেয়ে মেধার মা তাকে গালমন্দ করে। এতেই মেধা আত্মহত্যার পথ বেছে নেয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক আমজাদ আলী বলেন, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের এক ছাত্রী নাখালপাড়ার বাসায় আত্মহত্যা করেছে। আমরা পুরো বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি।
তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ওসি আব্দুর রশিদ পরিবারের সদস্যদের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, মেধা মোবাইল ফোনে বেশিরভাগ সময় ফেসবুকে থাকতেন। এ নিয়ে মেধার বাবা ও মা প্রায়ই তাকে ফেসবুক দেখা বন্ধ করে পড়াশুনা করতে বলেন। বুধবার রাত ২টা পর্যন্ত মেধা ফেসবুক দেখেছিলেন তিনি। এসময় তার মা তাকে গালমন্দ করেন। এরপরই মেধা ঘরের বাতি বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়েন। কিন্তু মেধার মায়ের সন্দেহ হলে ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ঘরে ঢুকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচানো অবস্থায় মেধার লাশ ঝুলতে দেখেন।
মেধা আত্মহত্যার আগে তার ফেসবুক পাতায় একটি স্ট্যাটাস দেন। তার বন্ধু হাসান বলেন, বুধবার রাতে সে সুইসাইড করবে বলে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিল। সকালে শুলনাম, বাসায় ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে সে সুইসাইড করেছে। পরে তার ফেসবুকের একাউন্ট ডিঅ‌্যাক্টিভেট করা হয়।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগে মেধার এক বান্ধবী বলেন, আমি মেধার বাসায় গিয়েছিলাম। ওর আম্মু বলছিলেন, রাত দুটোর সময় এসে দেখি মেধা মোবাইল ফোনে ফেসবুক ঘাঁটাঘাঁটি করছিল। তখন আমি বকাবকি করি। পরে রাত চারটার সময় এসে দেখি ওর লাশ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। এই টুকু বকাবকিতে অভিমান করে মেয়েটি আত্মহত্যা করলো-এই কথা বলে ওর মা বিলাপ করছিলেন।
তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার এসআই রিয়াজ হোসেন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে। মেধার বাবা মোজাম্মেল হক নাখালপাড়ার হোসেন আলী স্কুলের শিক্ষক। সকালে আদালতের অনুমতি নিয়ে ময়না তদন্ত ছাড়া লাশ কুমিল্লার লাঙ্গলকোট থানার বোদ্ধপাড়া গ্রামে নিয়ে যাওয়া হয়।

মানবকণ্ঠ/এসসি/জেডএইচ






অ্যাপস ও ফিড
সামাজিক নেটওয়ার্ক
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর
প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২
ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । মানবকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর, প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com