শিরোনাম :
তামিম-জুনায়েদের পথে এবার তাসকিন!
ক্রীড়া প্রতিবেদক
Published : Tuesday, 10 January, 2017 at 8:22 PM, Update: 10.01.2017 8:26:26 PM
তামিম-জুনায়েদের পথে এবার তাসকিন! ২০০৮ সালের ঘটনা। বাংলাদেশ দল নিউজিল্যান্ড সফরে গেছে তখন। সেই দলের অন্যতম সদস্য মাত্রই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রবেশ করা তামিম ইকবাল। তখনো টেস্ট অভিষেক হয়নি। কিন্তু একদিনের ও কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে নিজেকে ধীরে ধীরে মেলে ধরছেন। বিশেষ করে একদিনের ক্রিকেটে। 
২০০৭ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে ভারতকে হারানো নিজেদের প্রথম ম্যাচেই তামিমের মারমুখী ব্যাটিংই বেশি আলো ছড়িয়েছিল। জহির খানের পেস বলে ডাউন দ্য উইকেটে এসে মারা ছক্কাটি ক্রিকেটবিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল। শুরুতে তামিম ইকবাল ওপেনিংয়ে সঙ্গী হিসেবে জাভেদ ওমর ও শাহরিয়ার নাফিসকে পেলেও নিউজিল্যান্ড সফরে গিয়ে পান নতুন সঙ্গী জুনায়েদ সিদ্দিককে। 
জুনায়েদের অভিষেকও হয়েছিল সেই সফরে। তিনিও তামিমের মতো হার্ডহিটার এবং বাঁ-হাতি। সিরিজ শুরু হয়েছিল একদিনের ম্যাচ দিয়ে। দু’জনেরই টেস্ট অভিষেক না হওয়াতে একদিনের সিরিজ শেষেই দেশে ফিরে আসার কথা। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে সে সময় তৎকালীন কোচ জিমি সিডন্স ডানেডিনে তামিম-জুনায়েদ দু’জনকেই টেস্টে অভিষেক করিয়ে দেন। নিউজিল্যান্ডের বাউন্সিং উইকেটে দু’জনেরই অভিষেক হয়েছিল চমৎকার। প্রথম ইনিংসে ভালো করতে না পারলেও দ্বিতীয় ইনিংসে তারা ১৬১ রানের জুটি গড়েছিলেন। দু’জনেই সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন। তামিম ৮৪ ও জুনায়েদ ৭৪ রানে আউট হন। 
দীর্ঘ ৮ বছর পর এই দু’জনেরই পথে হাঁটতে যাচ্ছেন পেসার তাসনিক আহমেদ। তিনিও ইতোমধ্যে রঙিন পোশাকে নিজের কার্যকারিতা প্রমাণ করেছেন। খেলেছেন ২৩টি একদিনের ও ১৪টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ। কিন্তু টেস্ট খেলা হয়নি। কোচ হাথুরুসিংহে এবার তাসকিনকে টেস্ট ম্যাচ খেলাতে চান। যে কারণে তাকে কুড়ি ওভারের সিরিজের প্রথম দু'টি ম্যাচ খেলাননি। দেখার বিষয় তাসকিন কি পারবেন তামিম-জুনায়েদের মতো নিজের অভিষেককে বর্ণিল করে তুলতে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হবে তার সে পথ চলা!
ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে তাসকিন যদি নিজের অভিষেককে বর্ণিল করে তুলতে পারেন তাহলে এই মাঠে বাংলাদেশের অন্ধকারে ঢাকা টেস্ট ম্যাচে দেখা যাবে আলোর ফোয়ারা। আগে থেকেই টেস্ট ম্যাচ খেলার কথা জানার কারণে তাসকিন নিজেও মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত করে তোলার পর্যাপ্ত সময় পেয়েছেন। আবার তিনি নিজেও রোমাঞ্চিত। কারণ টেস্ট ম্যাচেই তো ক্রিকেটের আসল সৌন্দর্য নিহিত আছে। তাসকিন চান এবার সেই সৌন্দর্যের স্বাদ নিতে। 
ওয়েলিংটনে পৌঁছার পর সোমবার বাংলাদেশ দল প্রথম অনুশীলন করে। তাসকিনের টেস্ট অনুশীলনও ছিল প্রথম। পরে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় তাসকিন জানান, সত্যি কথা বলতে, টেস্ট অভিষেক হলে সেটি হবে স্বপ্ন পূরণের মতো। গত আড়াই বছরে যত আন্তর্জাতিক সিরিজ খেলেছি, সবসময় দেখা যেত টি-টোয়েন্টি বা ওয়ানডে সিরিজ শেষ হলে আমি চলে যেতাম। এবার থাকার সৌভাগ্য হয়েছে। সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা দেব। আমার স্বপ্ন পূরণ হবে খেলতে পারলে। টেস্ট ম্যাচ খেলা নিয়ে রোমাঞ্চিত হলেও তাসকিনের কিন্তু প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ খেলার সংখ্যা খুবই কম। মাত্র ১০টি। সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছিলেন ২০১৩ সালে। এ নিয়ে কোনো শঙ্কায় নেই তিনি। তাসকিন বলেন, ‘নেটে এমনও দিন হয়েছে যে কয়েকটা স্পেলে ১২-১৫ ওভার বোলিং করেছি। নতুন বলে, পুরনো বলে। লাল বলে সুইং করানোর চেষ্টা করছি, শিখছি। ফিটনেসের অবস্থা আগের থেকে অনেক ভালো বলেই টেস্ট খেলতে যাচ্ছি। এক ম্যাচ খেলেই থেমে যেতে চাই না। নিয়মিত খেলতে চাই। আমি বিশ্বাস করি, টেস্ট খেলতে খেলতেই আমি আরো শক্তপোক্ত হবো।’ 
তাসকিনকে টেস্ট খেলানো হবে বলে তার জন্য আলাদা করে অনুশীলনের প্রোগ্রামও তৈরি করা হয় বলে জানান তিনি। তাসকিন বলেন, ‘টেস্টে সুযোগ পাওয়ার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে হয়েছে। আমার জন্য আলাদা প্রোগ্রাম তৈরি করা হয়েছিল, সেই প্রোগ্রাম অনুযায়ী ট্রেনিং করেছি। গত দেড়-দুই বছরে আস্তে আস্তে বোলিং ওয়ার্ক লোড বাড়িয়েছি। প্রস্তুত বলেই এখন খেলতে যাচ্ছি।’
এদিকে ২১ বছর বয়সী তাসকিনের টেস্ট অভিষেক হবে বলে সতীর্থরাও বেজায় খুশি। সবার আদরের তাসকিনকে উৎফুল্ল রাখতে এ নিয়ে তার সঙ্গে সবার খুনসুটি চলছে। তাসকিন নিজেই জানান সে কথা,  ‘কী রে, টেস্ট খেলবি!’ সবাই হেসে হেসে বলছে। আমারো ভালো লাগছে। কারণ স্বপ্ন পূরণ হচ্ছে। টিমমেটরা সবাই উৎসাহ দিচ্ছে। কোচরা তাদের অভিজ্ঞতা থেকে বলছেন। সবাই অনুপ্রেরণা দিচ্ছে।’ 
এদিকে বেসিন রিজার্ভের সুবজ উইকেট দেখে তাসকিনের যেন তর সইছে না বোলিং করার জন্য তিনি বলেন, ‘বোলাররা উইকেট দেখে খুব খুশি। সবুজ ও শক্ত উইকেট। বোলিংয়ের জন্য ভালো। আমারও ভালো লাগছে। এই উইকেটে বোলিংটা উপভোগই করব।’ 
 
মানবকণ্ঠ/এনএস





অ্যাপস ও ফিড
সামাজিক নেটওয়ার্ক
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর
প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২
ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । মানবকণ্ঠে প্রকাশিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র ও অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আনিস আলমগীর, প্রকাশক : জাকারিয়া চৌধুরী
রোড -১৩৮, প্লট - ১/এ, গুলশান-১, ঢাকা-১২১২ ফোনঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৩-৫, ফ্যাক্সঃ +৮৮-০২-৫৫০৪৪৯৪৮
ই-মেইল : info@manobkantha.com, mkonlinedesk@gmail.com