ব্যালিস্টিক পরীক্ষার প্রতিবেদন আদালতে

সাংবাদিকের মাথায় পাওয়া লেডবলটি মেয়রের শটগানের

সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত সাংবাদিক শিমুলের মাথা থেকে পাওয়া ‘লেড বলটি’ শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র হালিমুল হক মিরুর শটগানের।
আদালতে জমা দেয়া পৌর মেয়রের শটগান ও সাংবাদিকের মাথার গুলির লেডবলের ব্যালিস্টিক পরীক্ষার প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।
শাহজাদপুর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে সিআইডির ব্যালিস্টিক পরীক্ষার রিপোর্টটি গত ৬ মার্চ নথিভুক্ত করা হয়েছে বলে সোমবার জানান ওই আদালত পুলিশের জেনারেল রেজিস্ট্রেশন অফিসার (জিআরও) মো. আতাউর রহমান।
তিনি বলেন, ঢাকার পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) কার্যালয় থেকে রিপোর্ট পাঠানো হয়। রিপোর্টে লেডবলটি পৌরমেয়র হালিমুল হক মিরুর শটগানের বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহজাদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম সোমবার সাংবাদিকদের জানান, নিহত সাংবাদিক শিমুলের মাথা থেকে পাওয়া গুলির লেডবলটি মেয়র মিরুর ব্যবহৃত লাইসেন্স করা শটগানের গুলি বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।
বিষয়টি আদালতের আইনজীবীদের কাছ থেকে জানা গেছে। পরে বিস্তারিত জানা যাবে।’ ব্যালিস্টিক পরীক্ষার জন্য গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সিআইডিতে নমুনা পাঠিয়েছিলো শাহজাদপুর থানা পুলিশ।
উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি শাহজাদপুর সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি বিজয় মাহমুদকে মারধর করার জের ধরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এই সংঘর্ষের সময় পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে দৈনিক সমকালের শাহজাদপুর প্রতিনিধি আবদুল হাকিম গুলিবিদ্ধ হন। পরের দিন তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় নিহত সাংবাদিকের স্ত্রী নুরুননাহার খাতুন বাদী হয়ে পৌরমেয়র হালিমুল হকসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও ২০/২৫ জনকে আসামি করে শাহজাদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস/এফএইচ