কুষ্টিয়ায় ভ্যানচালক হত্যায় ২ যুবকের মৃত্যুদণ্ড

কুষ্টিয়ার মিরপুরে ভ্যানচালক কিশোর নিশানকে (১৪) জবাই করে হত্যার দায়ে দুই জনের মৃত্যুদণ্ড ও প্রত্যেককে দশ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। মৃত্যুদণ্ডাশপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, সন্টু শেখ (২১) ও মাহাবুল ইসলাম (২২)।
সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (২য় আদালত) মো. তৌহিদুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৫ জুলাই সকাল ৭টার সময় নিশান ভ্যান নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। রাতে বাড়ি না ফিরলে খোঁজাখুঁজি করেন স্বজনরা। পরিদন সকালে মিরপুর উপজেলার স্বরুপদহ ভাঙ্গা বটতলার কলা বাগানে নিশানের জবাই করা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ঘটনায় ২৬ জুলাই নিশানের পিতা ইনামুল মন্ডল বাদী হয়ে মিরপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশি তদন্তে গ্রেফতার হয় আসামি সন্টু শেখ। পুলিশ নিশানের পাখিভ্যান, হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি ও দড়ি উদ্ধার করেন। সন্টুর স্বীকারোক্তিতে পুলিশ গ্রেফতার করে অপর আসামি মাহাবুল ইসলামকে।
পরে পুলিশ সন্টু ও মাহাবুলের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট প্রদান করেন। পুলিশ প্রতিবেদন ও দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত সোমবার এ রায় দেন। রায় ঘোষণার সময় সন্টু ও মাহাবুল উপস্থিত ছিলেন।
কুষ্টিয়া আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অনুপ কুমার নন্দী বলেন, পুলিশ প্রতিবেদন, ২১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য দ্বারা সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণ হয়েছে সন্টু ও মাহাবুল ভ্যান চুরি করার জন্য এই খুন করে। আসামিদের মৃত্যুদণ্ড ও প্রত্যেকের দশ হাজার টাকা করে জরিমান করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, আসামি সন্টু ও মাহাবুল হাসান উভয়ের বাড়ি মিরপুর উপজেলার স্বরুপদহ গ্রামে।

মানবকণ্ঠ/এমআর/এসএস